‘মাস্ক’ পরলেই করোনার ঝুঁকি বেশি, দাবি মার্কিন বিশেষজ্ঞের

মঙ্গলবার, মার্চ ১০, ২০২০ ৩:৪৩ অপরাহ্ণ

প্রাণঘা’তী করোনাভাইরাস এখন বিশ্বের শতাধিক দেশে ছ’ড়িয়ে পড়েছে। এরইমধ্যে সেই তালিকায় যু’ক্ত হয়েছে বাংলাদেশের নাম। প্রথমবারের মতো প্রা’ণঘা’তী এই ভাইরাসে বাংলাদেশেও তিনজন রোগীর স’ন্ধা’ন পাওয়া গেছে।

নতুন এই ভাইরাসের প্র’কো’প থেকে বাঁ’চতে অনেকেই আ’তঙ্কি’ত হয়ে খাদ্য সামগ্রী, মা’স্ক এবং স্যানিটাইজার মজুদ করছেন। কিন্তু মার্কিন বিজ্ঞানীরা বলছেন, করোনাভাইরাস মো’কাবে’লায় মা’স্কের দরকার নেই। বরং মা’স্ক ব্যবহারের কারণে এই ভাইরাসে সং’ক্র’মিত হওয়ার ঝুঁ’কি বাড়তে পারে।

করোনায় প্রা’ণহা’ণির সংখ্যা গড়ে মাত্র ৩ দশমিক ৪ শতাংশ। যা প্রত্যেক বছরের মৌসুমী অন্যান্য ফ্লু’বাহি’ত রো’গের প্রা’ণহা’নির মতোই। অযথা আ’তঙ্কি’ত না হয়ে বরং একটু স’চেতন’তা অবল’ম্বন করলেই এই ভাইরাস তেমন কোনও ক্ষ’তি করতে পারবে না।

করোনাভাইরাসে বিশ্বে এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৬৫০ জন মানুষ মা’রা গেছেন; যাদের অধিকাংশই আগে থেকে ডায়াবেটিস, কিডনি কিংবা অন্যান্য জ’টিল রোগে আ’ক্রা’ন্ত এবং বৃদ্ধ। এমন প’রিস্থি’তিতে অযথা আ’ত’ঙ্ক ছড়িয়ে মা’স্ক কিংবা অন্যান্য প্রতিরোধ সামগ্রী মজু’দ করে বৈশ্বিক স’ঙ্ক’ট তৈরি না করাই সচে’তন মানুষের কাজ বলে ম’ন্ত’ব্য করেছেন স্বাস্থ্য বিশেষ’জ্ঞরা।

কখন মাস্ক পরবেন? একমাত্র সেই সময়ই আপনি মাস্ক পরতে পারেন; যখন অসু’স্থ এবং বাসা থেকে বাইরে যাবেন। বিশেষজ্ঞ এলি পেরেনসেভিচ বলেছেন, আপনি যদি মনে করেন যে ফ্লু’তে ভু’গছেন অথবা করোনাভাইরাস সং’ক্রমি’ত হয়েছেন, তবেই অন্যদের সুর’ক্ষার জন্য মাস্ক পরুন। বাড়িতে আপনি যদি নিজেকে অসু’স্থ বলে মনে করেন, তাহলে পরিবারের সদস্যদের র’ক্ষার জন্য আপনার মাস্ক পরা উচিত।

মার্কিন এই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বলেছেন, আপনি বাড়িতে যদি করোনা সং’ক্র’মিত কারও সে’বা করেন, সেক্ষেত্রে ওই ব্যক্তির কাছে যাওয়ার সময় আপনার মাস্ক পরাটা হবে বুদ্ধিমানের কাজ। এ সময় সং’ক্র’মিত ব্যক্তিকেও মাস্ক পরতে হবে।

করোনাভাইরাস মো’কাবি’লায় করণীয় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ফোর্বস ম্যাগাজিনে লিখেছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞান, মেডিসিন, স্বাস্থ্য এবং ভ্যা’কসি’ন বিশে’ষজ্ঞ তারা হায়েলে। সেখানে তিনি অযথা মাস্ক না পরার জন্য পরাম’র্শ দিয়েছেন।

এমনকি আপনার পাশেই যদি কেউ করোনায় আক্রা’ন্ত হয়ে থাকেন, তাহলেও আপনার সা’র্জিক্যা’ল মাস্ক, এন৯৫ মাস্ক, শ্বা’সয’ন্ত্রের মাস্ক কিংবা অন্য কোনও ধরনের মাস্ক পরার দরকার নেই। এগুলোর কোনো কিছুরই দরকার নেই। বরং সং’ক্র’মিত ব্যক্তি মাস্ক পরলে সেটি অন্য কারও মাঝে সং’ক্র’মণ ঘ’টাতে পারবে না।

বিশেষ’জ্ঞ এলি পেরেনসেভিচ বলেন, যারা গড়পড়তা সুস্থ আছেন তাদের মাস্কের দরকার নেই, মাস্ক পরা উচিত নয়। সু’স্থ মানুষ মাস্ক পরার পর করোনা থেকে র’ক্ষা পাবেন; এমন কোনও প্রমাণ নেই। তারা এই মাস্ক ভু’লভাবে পরছেন। আর এতে বরং সং’ক্রম’ণের ঝুঁ’কি আরও বেশি বা’ড়ছে। কারণ তারা মাস্ক পরার পর বারবার মুখ স্প’র্শ করছেন। শুধুমাত্র অসুস্থ হলেই মাস্ক পরুন, অন্যথায় নয়।