বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচকের দায়িত্ব পাচ্ছেন আব্দুর রাজ্জাক

শুক্রবার, অক্টোবর ১৬, ২০২০ ৩:২৩ অপরাহ্ণ

অবশেষে একজন অতিরিক্ত নি’র্বাচক নিয়োগ দিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। আর সেই তালিকায় রয়েছে দুই জন ক্রিকেটারের নাম। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক। বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন সেই ২০১৪ সালে।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে সর্বশেষ টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন ২০১৮ সালের শ্রীলংকার বিপক্ষে। এরপর আর বাংলাদেশের জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেখা যায়নি আব্দুর রাজ্জাককে।

ঘরোয়া ক্রিকেট লীগে নিয়মিত পারফরম্যান্স করলেও নির্বাচকদের নজরে আসেনি আব্দুর রাজ্জাক। তবে এবার বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেতে যাচ্ছেন এই কিংবদন্তীর স্পিনার।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক হতে যাচ্ছেন তিনি। ইতিমধ্যেই বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক হওয়ার জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে আব্দুর রাজ্জাককে। শুধু তাই নয় আব্দুর রাজ্জাকের পরে নাম রয়েছে আরেক ব্যাটসম্যান শাহরিয়ার নাফিসের।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়েও অনেকদিন ধরেই নির্বাচকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন মিনহাজুল আবেদীন নান্নু এবং হাবিবুল বাশার। মাত্র দুইজন নির্বাচক হওয়ার কারণে ঘরোয়া ক্রিকেটে লীগের প্রতিটি ম্যাচেই নজর রাখতে পারছেন না তারা।

তাই ঘরোয়া ক্রিকেট লিগের দিকে বিশেষ নজর রাখার জন্যই আরো একজন নির্বাচক নিয়োগ দিতে যাচ্ছে বিসিবি। গতকাল এই বিষয় নিয়ে বৈঠকে বসে ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অপারেশন্স কমিটি। সেখানে প্রথমেই এসেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কিংবদন্তি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক এর নাম। যদি তিনি প্রত্যাখ্যান করে তার পরিবর্তে শাহরিয়ার নাফিস কে প্রস্তাব দেবে বিসিবি।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেছেন, ‘আমরা বিবেচনা করছি দুজনের কথা। রাজ (রাজ্জাক) ও শাহরিয়ার নাফীস বিবেচনায় আছে। এর মধ্যে রাজের সঙ্গে একটু কথা হয়েছে। চূড়ান্ত আলাপ হয়নি। ও যদি সবকিছু মেনে রাজি হয়, তাহলে হয়তো সে দায়িত্বটা পাবে।’

রাজ্জাক বললেন, তিনি এমন একটা কানাঘুষা শুনেছেন। কিন্তু সিরিয়াস কোনো আলাপ হয়নি। এদিকে আকরাম বলেছেন, নির্বাচক হতে চাইলে খেলা ছেড়ে দিতে হবে। রাজ্জাক খেলা ছাড়বেন কি না, এ ব্যাপারেও মন্তব্য করতে চাইলেন না, ‘আমি আসলে এখনই মন্তব্য করতে চাচ্ছি না। আকরাম ভাইদের সঙ্গে চূড়ান্ত কোনো কথা হলে আমি সিদ্ধান্ত নিতে পারব।