নতুন সুখবর দিলো ব্রিটিশ গবেষক, দেখেনিন কত দিনের মধ্যে থাকবে না করোনা ভাইরাস

বুধবার, মে ২০, ২০২০ ৯:৩৮ পূর্বাহ্ণ

ব্রিটিশ গবেষক-অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর এভিডেন্স-বেসড মেডিসিনের ডিরেক্টর অধ্যাপক কার্ল হেনেঘান দাবি করেছেন বর্তমানে বিশ্বজুড়ে করোনা আ’ক্রান্ত হয়ে মৃ’ত্যুহার যেভাবে কমতে শুরু করেছে তাতে আশার আলো জেগেছে। আগামী জুন শেষে অর্থাৎ জুলাইয়ে করোনায়

মৃ’ত্যুহার শূ’ন্যতে নেমে আসতে পারে। যুক্তরাজ্যে বিগত কয়েক সপ্তাহে করোনায় দৈনিক মৃ’ত্যুহারের তথ্য বিশ্লেষণ করে এমন আভাস দিয়েছেন এই অধ্যাপক। যুক্তরাজ্যের জাতীয় পরিসংখ্যান কার্যালয়ের (ওএনএস) পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, মঙ্গলবার (১৯ মে) দেশটিতে কোভিড-১৯

আ’ক্রান্ত হয়ে মা’রা গেছেন ৫৪৫ জন (দৈনিক ভিত্তিতে গত সপ্তাহের তুলনায় ১৩ শতাংশ কম)। তার আগের সপ্তাহে ১১ মে মারা যায় ৬২৭ জন। ৯ এপ্রিল এ সংখ্যা ছিল এক হাজার ১৫২ জন। অর্থাৎ আগের তুলনায় দেশটিতে দৈ’নিক মৃ’তের হা’র কমছে। বর্তমানে যুক্তরাজ্যে করোনায়

মোট মৃ’তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৫ হাজার ৩৪১ জন। তার আগে গত ৮ মে ছিল শুক্রবার। ওএনএস বলছে, ওই সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের কেয়ার হোমগুলোতে মৃ’তের সংখ্যা ছিল ৪ হাজার ২৪৮ জন। তার আগের সপ্তাহে ছিল ৬ হাজার ৪০৯ জন। অর্থাৎ এক সপ্তাহের ব্যবধানে কেয়ার

হোমে মৃ’তের সংখ্যা কমেছে ২ হাজার ১৬২১ জন। এর মধ্যে কোভিড-১৯ আ’ক্রান্ত হয়ে মা’রা যান ১ হাজার ৬৬৬ জন।যুক্তরাজ্যে বিগত তিন সপ্তাহের পরিসংখ্যান তুলে ধরে অধ্যাপক কার্ল হেনেঘান বলেছেন, ‘আমি মনে করি, যদি করোনায় মৃ’তের হার এভাবেই কমতে থাকে তাহলে

আমি বলব, জুন শেষে কোভিড-১৯ আ’ক্রান্ত লোকজনকে খুঁজে পাওয়াই কষ্ট হয়ে যাবে।‌ বর্তমানে বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে আ’ঘাত হে’নেছে ক’রোনা। এ পর্যন্ত বিশ্বের ৪৯ লাখ ৮৬ হাজার ৬৮১ জন আ’ক্রান্ত হয়েছেন। মা’রা গেছেন ৩ লাখ ২৪ হাজার ৯১২ জন।

আর সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৫৮ হাজার ৫২৫ জন। তবে সবচেয়ে বেশি আ’ঘাত হেনেছে যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে এ পর্যন্ত মোট ১৫ লাখ ৭০ হাজার ৫৮৩ জন আ’ক্রান্ত হয়েছেন। আর মা’রা গেছেন ৯৩ হাজার ৫৩৩ জন। এ পর্যন্ত কোনো ভ্যাকসিন আ’বিষ্কার হয়নি করোনার।

মেডিসিনের ডিরেক্টর অধ্যাপক কার্ল হেনেঘান এই যুক্তিতে আশাবাদী হয়ে উঠছেন বিশ্বের সকল মানুষ। কারণ এখন পর্যন্ত জোর চেষ্টা চললেও কোভিডের কোন সুনির্দিষ্ট চিকিৎসা, ওষুধ বা টিকা আবিষ্কৃত হয়নি। সূত্র: ডেইলি মেইল।