ক’রোনার লক্ষণ দেখা দিলে, খুব দ্রুত যা করবেন

মঙ্গলবার, মার্চ ১০, ২০২০ ৪:৩২ পূর্বাহ্ণ

খুব দ্রুত যা করবেন-চী’ন থেকে ছড়িয়ে পড়া করো’নাভা’ইরাসের তাপ লেগেছে বাংলাদেশেও। রোববার (৮ মার্চ) প্রথমবারের মতো করো’নাভাই’রাস আ’ক্রান্ত তিনজনকে শনাক্ত করেছে আইইডিসিআর। এরপর থেকে দেশের মানুষের মধ্যে এ’কধরণের ভী’তি ছ’ড়িয়ে পড়েছে।

চাহিদা বেড়েছে হাত জী’বাণুমু’ক্তকরণ ও মা’স্কের। অতিরিক্ত কেনার কারণে অনেক ঔষধের দোকানগুলো থেকে ফুরিয়েও গেছে। সরকারি যোগাযোগের নম্বরেও অনেকে ফোন করতে শুরু করেছেন। করো’নাভাই’রাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্বে স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা

করলেও বাংলাদেশের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, এ নিয়ে আ’তঙ্কিত হওয়ার কোন দরকার নেই। তারা কিছু নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন। আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, বিদেশ থেকে বাংলাদেশে এলে অন্তত ১৪দিন বাড়িতেই থাকুন।

এ সময় কারো সঙ্গে মেলামেশা করবেন না। আত্মীয়স্বজনদের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেছেন, ‘বিদেশ থেকে আসা প্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজনের ক্ষেত্রে আপনারা নিশ্চিত করুন যেন তারা অন্তত ১৪দিন বাড়িতেই থাকেন। তারা বাইরে বেরিয়ে এলে আপনারা বাড়িতে থাকার কথা মনে করিয়ে দিন।’

করো’নাভাই’রাসের আ’ক্রান্ত হওয়ার লক্ষণগুলো দেখা দিতে ১৪ দিন পর্যন্ত সময় লাগে। ফলে এই সময়টাতে সবাইকে স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টিনে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। অর্থাৎ বাড়িতে একা থাকতে হবে, কারো সঙ্গে মেলামেশা করা যাবে না। এই সময়ের মধ্যে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ দেখা দিলে স্বাস্থ্য

অধিদপ্তরের হটলাইনে যোগাযোগ করতে হবে। সেখান থেকে নমুনা সংগ্রহ, চিকিৎসার ব্যাপারে পরামর্শ দেয়া হবে। নতুন হটলাইন নম্বর ১৬২৬৩ এছাড়া পুরনো হটলাইন নম্বরগুলোও চালু থাকবে। এগুলো হলো: ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫। জ্বর দিয়ে ভাই’রাসের সংক্রমণ

শুরু হয়, এরপরে শুকনো কাশি দেখা দিতে পারে। সেই সঙ্গে মাথাব্যথা, নাক দিয়ে পানি পড়া, গলা ব্যথা, জ্বর ইত্যাদি হতে পারে। প্রায় এক সপ্তাহ পরে শ্বাসকষ্ট শুরু হয়ে যায়। অনেক রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দিতে হয়। প্রতি চারজনের মধ্যে অন্তত একজনের অবস্থা মা’রাত্মক প’র্যায়ে যায় বলে মনে করা হয়।bd24live