আ’শঙ্কাই সত্যি, রাহুল গান্ধী গ্রে’ফতার

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১, ২০২০ ১১:৩৯ পূর্বাহ্ণ

রাহুল গান্ধী গ্রে’ফতার-আ’শঙ্কাই সত্যি হল। হাথরসের পথে গ্রে’ফতার করা হল রাহুল গাঁধীকে। তার আগে দে’ওয়া হল গ’লাধাক্কা। উত্তরপ্রদেশ পু’লিশের ধা’ক্কায় মা’টিতে প’ড়েই যান সনিয়া-তনয়। শেষ খবর, হা’থরসের নি’র্যাতিতার যে’তে না দিয়ে রাহু’লকে মা’ঝপথ থেকেই গ্রে’ফতার করা হয়েছে। তার আগে পথের

মধ্যেই পু’লিশের সঙ্গে রাহু’লের ত’র্কাতর্কি শুরু হয়। ক’র্তব্যরত পু’লিশ অফিসার রাহুলকে বলে, ‘‘আপনি ১৪৪ ধারা ভা’ঙছেন।’’ পাল্টা রাহুল বলেন, ‘‘১৪৪ ধা’রার অ’পব্যবহার ক’রছেন আ’পনারা।’’ এ দিন প্রি’য়ঙ্কা গাঁ’ধী-সহ কংগ্রেস নেতা-নেত্রীদের প্রতিনিধি দলের একটি কনভ’য় হাথরসের পথে রওনা হয়। মাঝপথে

তাদের প্রথমে আ’টকে দেওয়া হয়। কিন্তু নাছোড় রাহুল-প্রিয়ঙ্কাও। তাঁরা স্থানীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে হেঁ’টেই রওনা দেন হাথরসের দিকে। রাহুল-প্রিয়ঙ্কার সঙ্গে ছিলেন বহরমপুরের কংগ্রেস সাংসদ তথা লো’কসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরীও। দিল্লি-উত্তরপ্রদেশ হাইওয়ের উপরেই তাঁ’দের ক’নভয় আ’টকে দেও’য়া হয়। আগে

থেকেই রাহুল-প্রিয়ঙ্কা ঘো’ষণা করেছিলেন হাথরসে যাওয়ার কথা। কিন্তু আজ বৃহস্পতিবার ১৪৪ ধা’রা জা’রি করে যোগী সরকার। তাতেও কর্মসূচি বাতিল করেন কংগ্রেস নেতা-নেত্রীরা। রাহুল-প্রিয়ঙ্কার কনভয় গ্রেটার নয়ডায় আ’সতেই আ’টকে দেও’য়া হয়। সেখানে গাড়ি থেকে নেমে উত্তরপ্রদেশ-দিল্লি হাইওয়ে ধরে হাঁটতে শুরু

করেছেন তাঁরা। রাহুল প্রিয়ঙ্কাকে যেখানে আটকানো হয়েছে, সেখান থেকে হাথরসের দূরত্ব প্রায় ১৪০ কিলোমিটার। উত্তরপ্রদেশ পু’লিশের অ’জুহাত, কোভিডের কারণেই রাজ্যে নি’য়ন্ত্রণ জা’রি রয়েছে। সেই কারণেই রাহুল-প্রিয়ঙ্কার কনভয় আ’টকানো হ’য়েছে। এক পু’লিশ ক’র্তা বলেন, করোনা ভাইরা’সের সং’ক্রমণ আ’টকাতে ১

সেপ্টেম্বর থেকে রাজ্যে প্রবেশের উপর নিয়ন্ত্রণ জারি করা হয়েছিল। সেই নিয়ন্ত্রণ বাড়িয়ে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত করা হয়েছে। তাঁর দাবি, রাজ্য বহু পু’লিশকর্মী করোনা আ’ক্রান্ত। গ’ণধ” ও নি’র্মম অ’ত্যাচারে হা’থরসে দলি’ত ম’হিলার মৃ’ত্যুর ঘ’টনায় দেশ জু’ড়ে শো’রগোল প’ড়ে গিয়েছে। ফের জী’বন্ত হয়ে উঠেছে ২০১২

সালে নি’র্ভয়া গণধ”’ কা’ণ্ডের স্মৃ’তি। ইতিমধ্যেই দেশের একাধিক জায়গায় হাথরসের ঘট’নাকে সামনে রেখে বি’ক্ষোভ-প্র’তিবাদে নে’মেছে বি’রোধী দ’লগুলি। বুধবার মুম্বইতে মো’মবাতি মি’ছিল করেন কংগ্রেস কর্মী সম’র্থকরা। বৃহস্পতিবার ক’লকাতাতেও একটি প্র’তিবাদ বি’ক্ষোভের আ’য়োজন ক’রা হয়েছে। সেই

আ’ন্দোলন আর’ও জো’রদার কর’তেই হা’থরস যাওয়ার সি’দ্ধান্ত নেন দুই কংগ্রেস নেতা-নেত্রী। অন্য দিকে ঘ’টনার তী’ব্র নি’ন্দা করে যোগী সরকার তথা বি’জেপির বি’রুদ্ধে ধা’রা’লো আক্র’মণ শা’নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব’ন্দ্যোপাধ্যায়ও। তিনি টুইট করেছেন, হাথ’রসের দলি’ত তরু’ণীকে ঘি’রে এই ব’র্ব’র এবং

ল’জ্জাজ’নক কা’ণ্ডের নি’ন্দার কো’নও ভা’ষা নেই। নি’র্যাতি’তার প’রিবারকে গ’ভীর স’মবেদনা জানাই। আরও ল’জ্জাজ’নক ঘট’না হল, পরি’বারের কারও অ’নুমতি এবং উপ’স্থিতি ছা’ড়াই তরু’ণীর দে’হ সৎ’কার ক’রে দে’ওয়া। যা’রা খা’লি ভো’টের জন্য স্লো’গান দেয় আর ল’ম্বাচও’ড়া প্র’তিশ্রুতি দে’য় তা’দের আ’সল চে’হারা’টা সাম’নে এ’নে দি’চ্ছে এই ঘ’টনা।

হাথরসের জেলাশাসক পি লস্কর সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে আগেই জানিয়েছিলেন, রাহুল- প্রিয়’ঙ্কার সফ’রের কোনও খবর তাঁ’দের কাছে নেই। তিনি আরও বলেছেন, অপ্রী’তিকর প’রিস্থিতি’ এড়াতে জেলার সী’মানা সি’ল করে দেওয়া হয়েছে এবং এলাকা’য় ১৪৪ ধা’রা জা’রি করা হয়েছে। ঘট’নার ত’দন্তে যে বিশেষ ত’দন্তকারী দল (সিট) গ’ঠন করা হয়েছে, তার সদ’স্যরা এদিন নি’হ’ত তরু’ণীর পরি’বারের সঙ্গে দে’খা কর’বেন বলে জা’নিয়েছেন লস্ক’র।

সূত্র: আনন্দবাজার